কূটনীতিকদের সাথে যে কথা বলল জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ ঢাকায় অবস্থানরত বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের কাছে ৭ দফা দাবি ও ১১ দফা লক্ষ্য তুলে ধরেছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। বৃহস্পতিবার বিকেলে রাজধানীর গুলশানে হোটেল লেকশোরে বৈঠকটি শুরু হয়ে পৌনে ১ ঘণ্টা চলে।

গনফোরামের প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রতীক বলেন, বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বৈঠকে সূচনা বক্তব্য রাখেন। এরপর ড. কামাল হোসেন লিখিত বক্তব্য উপস্থাপন করেন।

লিখিত বক্তব্যে সুষ্ঠু, অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্টের ৭ দফা দাবি ও ১১ দফা তুলে ধরেন তিনি। এ সময় কূটনীতিকদের প্রশ্নের জবাব দেন ড. কামাল হোসেন।

ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা আ স ম আব্দুর রব বলেন, আজকে আমরা বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের সাথে মতবিনিময় করেছি৷ অত্যন্ত সফলভাবে এই মতবিনিময় সভা সমাপ্ত হয়েছে।

সিলেটে জনসভা বিষয়ে তিনি বলেন, ২৩ অক্টোবর সিলেটে আমাদের জনসভা ছিলো৷ তার অনুমতি দেয়নি সরকার। আমরা আশা করবো, অন্তত ২৪ তারিখ অনুমতি দেয়া হবে৷ আশা করছি সরকার গণতান্ত্রিক আচরণ করবে। সরকার যদি অনুমতি না দেয় তাহলে দেশে বিদেশে তাদের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হবে৷

ঢাকায় অবস্থানরত সুইজারল্যান্ড, পাকিস্তান, অস্ট্রেলিয়া, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কাতার, ভিয়েতনাম, কানাডা, তুরস্ক, চীন, ইউরোপিয়ান ইউনিয়ন, জাপান, ভারতের পলিটিক্যাল অ্যাফেয়ার্স ফ্রান্সসহ বিভিন্ন দেশের কূটনৈতিক ও প্রতিনিধিরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, মির্জা আব্বাস, নজরুল ইসলাম খান, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, জমির উদ্দিন সরকার, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিমা রহমান, মেজর হাফিজ উদ্দিন আহমেদ প্রমুখ।

এ ছাড়াও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার আহ্বায়ক ড. কামাল হোসেন, সুব্রত চৌধুরী, জেএসডির আসম আব্দুর রব, তানিয়া রব, নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নাসহ ঐক্য প্রক্রিয়ার নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending