চিকিৎসা পদার্থবিদ্যা ও রসায়নে নোবেল পেলেন যারা

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ চিকিৎসা পদার্থবিদ্যা ও রসায়নে নোবেল পেয়েছেন ৮ বিজ্ঞানী। সুইডিশ রসায়নবিদ আলফ্রেড নোবেলের নামানুসারে এবং তার উদ্যোগে মূলত ১৮৯৫ সাল থেকে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়।

তবে এ বছর সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার না দেওয়ার সিদ্ধান্ত জানিয়েছে সুইডিশ একাডেমি। আগামী বছর অর্থাৎ ২০১৯ সালে এ বিভাগে একসঙ্গে দু’টি পুরস্কার দেবে। এর একটি ২০১৮ সালের জন্য, অপরটি ২০১৯ সালের।

d-1

চিকিৎসায় নোবেল পেলেন দুই বিজ্ঞানী :  আমেরিকান জেমস পি অ্যালিসন এবং জাপানি তাসুকু হনজো নামের দুই ইমিউনোলোজিস্ট প্রাণঘাতী ক্যান্সারের চিকিৎসায় বৈপ্লবিক এক থেরাপি আবিষ্কারের ফলে চলতি বছরে চিকিৎসা বিজ্ঞানে যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পেলেন। ‘গার্ডিয়ান’

২০১৮ সালের চিকিৎসায় নোবেল পুরস্কারটি হিউস্টনের টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘এমডি এন্ডারসন ক্যান্সার সেন্টার’ এর জেমস পি অ্যালিসন ও জাপানের কিয়োটো বিশ্ববিদ্যালয়ের তাসুকু হনজোর কাছে চলে গেছে। পুরস্কারে প্রাপ্ত ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনা দুজনের মধ্যে ভাগাভাগি করে নেবেন। ক্যান্সারের বিরুদ্ধে প্রতিরোধের জন্য প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা নিয়ে তাদের কাজটি ইতোমধ্যেই রূপান্তরিত বলে বিবেচিত হয়েছে।

শরীরের ইমিউন সিস্টেম ক্যান্সার কোষে আক্রমণ ঠেকাতে ব্যবহার করা যেতে পারে। ক্যান্সারের চিকিৎসায় থেরাপি উন্নয়নে যুগান্তকারী এই আবিষ্কারের জন্য নি:সন্দেহে আরও অনেক বেশি জীবন রক্ষা করতে ভূমিকা রাখবে।

ইমিউন সিস্টেম শরীরের পরিবর্তিত কোষ খুঁজে বের করে সেগুলো ধ্বংস করে। কিন্তু ইমিউনের আক্রমণ থেকে লুকানোর চেষ্টা করে ক্যান্সার কোষ। এভাবে শরীরে ক্যান্সার কোষের বৃদ্ধি ও বিস্তার ঘটায়।

২০১৭ সালে চিকিৎসাশাস্ত্রে নোবেল পুরস্কার পেয়েছিলেন জেফরি সি হল, মাইকেল রসবাশ এবং মাইকেল ডব্লিউ ইয়ং। বায়োলজিকাল ক্লকস নিয়ন্ত্রণে মলিকিউলার মেকানিজম আবিষ্কারের স্বীকৃতি স্বরূপ তারা এই পুরস্কার পেয়েছেন। মানুষ, উদ্ভিদ এবং অন্যান্য প্রাণী কীভাবে বিভিন্ন অভ্যাসে অভ্যস্ত হয় সে বিষয়ে গবেষণায় উল্লেখযোগ্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ তাদের এই পুরস্কার দেয়া হয়।

phijics

পদার্থবিদ্যায় নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী : পদার্থবিদ্যায় ‘লেজার ফিজিক্সে’ বিশেষ উদ্ভাবনের স্বীকৃতিস্বরূপ যৌথভাবে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন আর্থার আসকিন, জেরার্ড মোরউ ও ডোননা স্ট্রিকল্যান্ড।

মঙ্গলবার (২ অক্টোবর) সুইডেনের স্থানীয় সময় ১১টা ৪৫ মিনিটে (বাংলাদেশ সময় পৌনে চারটা) নোবেল বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করে রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্সেস।

২০১৮ সালে পদার্থবিদ্যার নোবেলের অর্ধেক পেয়েছেন মার্কিন পদার্থবিদ আর্থার আসকিন এবং বাকি অর্ধেক যৌথভাবে পেয়েছেন ফ্রান্সের পদার্থবিদ জেরার্ড মোরউ ও কানাডার নারী পদার্থবিদ ডোননা স্ট্রিকল্যান্ড। অর্থ্যাৎ পুরষ্কারের ৯ মিলিয়ন সুইডিশ ক্রোনার অর্ধেক পাবেন আর্থার আসকিন এবং বাকি অর্ধেক যৌথভাবে পাবেন জেরার্ড মোরউ ও ডোননা স্ট্রিকল্যান্ড।

বলা হচ্ছে, ৫৫ বছর পর এবার কোনো নারী পদার্থবিদ্যায় নোবেল পেলেন। ডোননা স্ট্রিকল্যান্ডের আগে ১৯০৩ সালে মারি ক্যুরি ও ১৯৬৩ সালে মারিয়া গ্যোপের্ট-মায়ার পদার্থবিদ্যায় নোবেল পান।

পদার্থে প্রথম নোবেল পুরস্কার পান জার্মান পদার্থবিদ উইলহেম রনজেন। এক্স-রে আবিস্কারের জন্য তাকে এ পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

camist

রসায়নে নোবেল পেলেন ৩ বিজ্ঞানী : রসায়ন শাস্ত্রে এবারের নোবেল পুরস্কার পেলেন দুই মার্কিন ও একজন ব্রিটিশ বিজ্ঞানী। প্রাণিদেহের রসায়নঘটিত সমস্যা সমাধানে বিবর্তনের ক্ষমতা ব্যবহার করে প্রোটিন উন্নয়নে কাজ করার স্বীকৃতি হিসেবে তাঁদের এই পুরস্কারে ভূষিত করা হয়।

পুরস্কারপ্রাপ্ত তিনজন হলেন: মার্কিন বিজ্ঞানী ফ্রান্সেস এইচ. আরনল্ড ও জর্জ পি. স্মিথ এবং ব্রিটিশ বিজ্ঞানী স্যার গ্রেগরি পি উইন্টার। বুধবার রয়েল সুইডিশ অ্যাকাডেমি অব সায়েন্স এই পুরস্কার ঘোষণা করে।

এনজাইমের বিবর্তন নিয়ে কাজ করার স্বীকৃতি হিসেবে ফ্রান্সেস এইচ আরনল্ড অর্ধেক এবং অ্যান্টিবডি ও পেপটাইডের ধাপ প্রদর্শন করার জন্য যৌথভাবে বাকি অর্ধেক পুরস্কারের জন্য স্যার গ্রেগরি পি উইন্টার ও জর্জ পি. স্মিথের নাম ঘোষণা করা হয়। সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে আগামী ১০ ডিসেম্বর তাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হবে।

পুরস্কারের ৯০ লাখ সুইডিশ ক্রোনারের মধ্যে ফ্রান্সেস এইচ আরনল্ড পাবেন অর্ধেক। উইন্টার ও স্মিথ বাকিটা যৌথভাবে পাবেন।

 

 

 

 

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending