জাবিতে নবম প্রজাপতি মেলা অনুষ্ঠিত

জাবি প্রতিনিধি: ‘উড়লে আঁকাশে প্রজাপতি, প্রকৃতি পায় নতুন গতি’-এই স্লোগানকে ধারণ করে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে ‘প্রজাপতি মেলা-২০১৮’।

শুক্রবার সকাল সাড়ে দশটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের জহির রায়হান মিলনায়তনের সামনে উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম বেলুন উড়িয়ে এবং প্রজাপতি অবমুক্ত করে মেলার উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী ভাষণে উপাচার্য বলেন, প্রজাপতি একটা অসাধারণ পতঙ্গ। প্রজাপতির সৌন্দর্যে আমরা মুগ্ধ হই এবং এদের বাহারি রঙ আমাদের মনকে আনন্দে ভরিয়ে দেয়। এ সময় তিনি প্রকৃতির ভারসাম্য রায় প্রজাপতির অপরিসীম অবদান রয়েছে উল্লেখ করে প্রজাপতি সংরক্ষণে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মেলার আহ্বায়ক ও প্রাণিবিদ্যা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘দেশে প্রায় ৩৫০ জাতের প্রজাপতি রয়েছে। গাছকাটা, লতাগুল্ম কমে যাওয়া, জলবায়ু পরিবর্তন, অতিরিক্ত গরম সহ বিভিন্ন কারণে প্রজাপতির সংখ্যা কমে যাচ্ছে। তাই এ মেলার মাধ্যমে পরিবেশের ভারসাম্য ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্য রক্ষায় সবাইকে সচেতন করাই আমাদের প্রত্যাশা।’

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক মো. নুরুল আলম, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক শেখ মো. মনজুরুল হক, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আব্দুল জব্বার হাওলাদার প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এবারের মেলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী ফাহমিদা সরকার বর্ষাকে ‘ইয়াং বাটারফ্লাই ইনথুসিয়াস্ট অ্যাওয়ার্ড’ এবং প্রজাপতি গবেষণায় সার্বিক অবদানের জন্য ‘জীবন বিকাশ কার্যক্রম’কে ‘বাটারফ্লাই অ্যাওয়ার্ড-২০১৮’ দেয়া হয়।

মেলার উদ্বোধন শেষে উপাচার্যের নেতৃত্বে একটি র‌্যালি বের হয়। এছাড়া দিনব্যাপী নানা আয়োজনের মধ্যে ছিল- শিশুদের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, আলোকচিত্র প্রদর্শনী, আলোকচিত্র প্রতিযোগিতা, জীবন্ত প্রজাপতি প্রদর্শন, অরিগামি, প্রজাপতির আদলে ঘুড়ি উড়ানো, বিতর্ক প্রতিযোগীতা, প্রজাপতি চেনা প্রতিযোগিতা, ডকুমেন্টারি প্রদর্শন, পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠান।

প্রসঙ্গত, ২০১০ সাল থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে ‘প্রজাপতি মেলা’ নামে ব্যতিক্রমধর্মী এ আয়োজন। প্রতি বছর দেশের বিভিন্নস্থান থেকে হাজারো দর্শনার্থী ছুটে আসে প্রজাপতি মেলায়।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending