পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ অ্যাপ-এর আনুষ্ঠানিক সূচনা

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ রাজধানী ঢাকায় বর্ণাঢ্য এক আয়োজনের মধ্য দিয়ে ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ মোবাইলনির্ভর ‘পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ’ অ্যাপটির আনুষ্ঠানিক সূচণা হলো।

এই মোবাইল অ্যাপসটির যথাযথ ব্যবহারের মাধ্যমে পথচারীরা নিকটবর্তী পাবলিক টয়লেট সহজেই খুঁজে পেতে পারবে। তা ছাড়া রাস্তায় ও দুরবর্তী যাত্রাপথে থাকা যাত্রীদের জন্যও এটা উপকারে আসবে।

ক্রমবর্ধমান যানজটের মাঝে যাত্রাপথে সাধারণ মানুষের অপ্রত্যাশিত ভোগান্তি ও বিরম্বনা লাঘবে এবং নিকটস্থ টয়লেট খুঁজে পেতে জনসাধারণের সুবিধার্থে গুগুল প্লেস্টোরে এ অ্যাপটি আনুষ্ঠানিকভাবে চালু করা হলো।

দৈনিক পথ চলতে পথচারীদের, বিশেষ করে নারী, শিশু এবং বয়স্ক মানুষদের জন্য রাস্তা-ঘাটে ব্যবহারপোযোগী টয়লেট খুঁজে বের করা শুধু যে ঝামেলাপূর্ণ তা নয়, বরং কখনও কখনও তা স্বাস্থ্য ও নিরাপত্তা ঝুঁকিও হয়ে দাঁড়ায়। পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ অ্যাপটির মাধ্যমে ব্যবহারকারীর জিপিএসের অবস্থান অথবা সরাসরি সার্চ অপশনের মাধ্যমে আশেপাশে নির্মিত প্রায় সকল পাবলিক টয়লেটসমূহের অবস্থান এবং সুযোগ-সুবিধা সংক্রান্ত তথ্যাদি জানতে পারবে।

এছাড়াও, পাবলিক টয়লেটসমূহে পুরুষ ও নারীদের জন্য আলাদা ব্যবস্থা আছে কিনা, প্রতিবন্ধী-বান্ধব কিনা, ব্যবহার ফি রয়েছে কিনা- এগুলোর তথ্যও অ্যাপটির মাধ্যমে জানা যাবে। টয়লেটের ছবি ও রিভিউ, ব্যবহারকারীদের টয়লেটটির অবস্থা বুঝতে সাহায্য করবে। ব্যবহারকারীদের দেয়া রিভিউ রেটিং অন্যান্যদের উন্নত টয়লেট খুঁজতে সাহায্য করবে এবং একইসাথে টয়লেটের পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার জন্য নিয়োজিত সংশ্লিষ্ট সকলকে সচেতন থাকতে সহায়তা করবে।

রাজধানীর বেশ কিছু নির্দিষ্ট এলাকাসমূহে এবং দেশের প্রধান চারটি মহাসড়কের আশেপাশে নির্মিত প্রায় সকল পাবলিক টয়লেটসমূহের অবস্থান এ্যাপটি ব্যবহার করে জানা যাচ্ছে। এছাড়াও ব্যবহারকারীগণ দেশের যে কোনো প্রান্ত থেকে তালিকা বহির্ভূত সকল টয়লেট কয়েকটি সহজ ধাপ অনুসরণ করে অ্যাপটির মাধ্যমে যোগ করতে পারবে।

‘পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ’ অ্যাপ-এর আনুষ্ঠানিক সূচনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব ডঃ জাফর আহমেদ খান বলেন মোবাইলনির্ভর ‘পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ’ এ্যাপটির আনুষ্ঠানিক যাত্রা একটি অন্যন্য ও সময় উপযোগী ঘটনা।

এ এ্যাপটির বিভিন্ন সুবিধা উল্লেখ করে পাবলিক স্যানিটেশন-এর চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য সকলকে এ্যাপটির প্রচার ও প্রসারের আহবান জানান।

ডঃ জাফর ওয়াটারএইড বাংলাদেশসহ এই উদ্যোগের সাথে জড়িত সকলকে ধন্যবাদ জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি, ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি সচিব, জুয়েনা আজিজ অ্যাপটিকে একটি আইসিটি ভিত্তিক উদ্ভাবনের প্রশংসনীয় দৃষ্টান্ত বলে তার বক্তব্যে উল্লেখ করেন। তিনি দেশের সমস্ত পাবলিক টয়লেটের প্রয়োজনীয় তথ্য এ্যাপে অর্ন্তভুক্ত করার জন্য সকলের সহয়েগিতার উপর গুরুত্বারোপ করেন।

ওয়াটারএইড বাংলাদেশ-এর কান্ট্রি ডিরেক্টর, মোঃ খায়রুল ইসলাম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্যে দেশের সকল পাবলিক টয়লেট এবং এ সংক্রান্ত তথ্যাদি এই এ্যাপের আওতায় নিয়ে আসার মাধ্যমে পাবলিক স্যানিটেশনের সেবাসমূহের মানোন্নয়নের প্রতি আলোকপাত ও গুরুত্বারোপ করেন। একই সাথে তিনি অ্যাপটিকে একটি যৌথ প্রচেষ্টার ফসল হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, শুধুমাত্র সকলের সক্রিয় অবদান এবং সরকারের আন্তরিক সহযোগিতার মাধ্যমেই এই প্রচেষ্টা সফল হবে।

উল্লেখ্য, গত পাঁচ বছর ধরে ওয়াটারএইড বাংলাদেশ ঢাকাসহ অন্যান্য তিনটি বিভাগীয় শহরে (চট্টগ্রাম, সিলেট ও খুলনা) সিটি কর্পোরেশন এবং স্থানীয় প্রশাসনের সাথে পাবলিক টয়লেট নির্মাণ ও সংস্কারের কাজ করে যাচ্ছে। বর্তমানে সকলের জন্য পাবলিক স্যানিটেশনকে সহজলভ্য ও সুগম করার লক্ষ্যেই এই অ্যাপটি নির্মানে উদ্যোগ নিয়েছ ওয়াটারএইড ।

খুব সহজেই ‘পাবলিক টয়লেট বাংলাদেশ’ অ্যাপ ডাউনলোড করতে নিচের লিংকটি ক্লিক করুন:
https://play.google.com/store/apps/details?id=softworks.com.toilettracker

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending