বিয়ে ভাঙছে ঐশ্বর্য রাইয়ের

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ চমকে গেলেও খবরটা সত্যি৷ বিয়ে ভাঙতে চলেছে ঐশ্বর্য রাইয়ের৷ তাঁর বাপেরবাড়ির সদস্যরা ও শ্বশুর পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার চেষ্টা করছেন৷ কিন্তু আদালতে ঐশ্বর্যকে ডিভোর্স দেওয়ার আবেদন জমা দিয়ে দিয়েছেন তাঁর স্বামী৷

আপনার হয়তো মনে হচ্ছে, কী এমন হল যে ঐশ্বর্য রাইকে ডিভোর্স দিতে চাইছেন অভিষেক বচ্চন? এই তো বৃহস্পতিবার প্রাক্তন বিশ্বসুন্দরীর জন্মদিন গেল৷ সেদিনও তো অভিষেক ট্যুইটারে স্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানালেন৷ তাহলে কেন এমন সিদ্ধান্ত?

আসলে যে ঐশ্বর্য রাইয়ের বিয়ে ভাঙছে, তিনি বচ্চন পরিবারের পুত্রবধূ নন৷ বলিউডের জনপ্রিয় ওই অভিনেত্রীর সঙ্গে তাঁর শুধু নামের মিল রয়েছে৷ তবে তিনিও বিখ্যাত পরিবারের পুত্রবধূ৷

এই ঐশ্বর্যের স্বামীর নাম তেজপ্রতাপ যাদব৷ তিনি রাষ্ট্রীয় জনতা দল সুপ্রিমো লালুপ্রসাদ যাদবের ছেলে৷ সম্প্রতি তিনি আদালতে স্ত্রীকে ডিভোর্স দেওয়ার আবেদন জমা দিয়েছেন৷

আর এই খবর সামনে আসতেই যাদব ও রাই পরিবারের মধ্যে হইচই শুরু হয়ে গিয়েছে৷ শুক্রবার তেজপ্রতাপ আদালতে আবেদন জানিয়েছেন৷ সন্ধ্যার পর বিষয়টি রাই পরিবারের কানে যায়৷ তার পর ঐশ্বর্য তাঁর মা-বাবার সঙ্গে রাবড়ীদেবীর বাড়িতে হাজির হন৷ সেখানে আবেদন প্রত্যাহার করার জন্য তেজপ্রতাপকে অনুরোধ করা হয়৷

প্রসঙ্গত, তেজপ্রতাপ কয়েকদিন আগেও ডিভোর্সের আবেদন আদালতে জমা দিয়েছিলেন৷ কিন্তু তথ্যগত গোলমালের জন্য তা বাতিল হয়ে যায়৷ তার পর শুক্রবার ফের তিনি আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন৷

এই পরিস্থিতিতে পারিবারিক সঙ্কট কাটাতে সক্রিয় হয়েছেন বিহারের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী লালুপ্রসাদ যাদব৷ তিনি এখন রাঁচি জেলে বন্দি৷ তিনি সেখানে ছেলেকে ডেকে পাঠিয়েছেন৷ তেজপ্রতাপ অবশ্য এ নিয়ে বিশেষ কিছু বলতে নারাজ৷ তবে তিনি ডিভোর্সের আবেদন করার বিষয়টি স্বীকার করে নিয়েছেন৷

লালুপ্রসাদ যাদব জেলে যাওয়ার পর তাঁর ছোট ছেলে তেজস্বী যাদব দলের ভার নিয়েছেন৷ এ নিয়ে তেজপ্রতাপ যাদব ক্ষুব্ধ৷ তিনি পরিবারের অন্দরে এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশও করেছিলেন৷ তার মধ্যে ঐশ্বর্যর সঙ্গে তাঁর সম্পর্ক কীভাবে তলানিতে ঠেকল, তা নিয়েই ধন্দ তৈরি হয়েছে৷

অনেকের বক্তব্য, পাঁচ মাস আগেই তাঁদের বিয়ে হয়৷ বিয়ের অনুষ্ঠানও ছিল জাঁকজমকপূর্ণ৷ প্রায় ১০ হাজার নিমন্ত্রিত ছিলেন৷ হাজির ছিলেন বিহারের রাজ্যপাল সত্যপাল মল্লিক থেকে শুরু করে রামবিলাস পাসওয়ান, নীতীশ কুমার, অখিলেশ যাদবের মতো নেতারা। লালুপ্রসাদ যাদবও জামিন নিয়ে ছেলের বিয়েতে অংশ নিয়েছিলেন৷

কলকাতা২৪

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending