ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার খুনের নেপথ্যে পরস্ত্রীকে ধর্ষণ

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার খুনের কিনারা করল সাও পাওলো পুলিশ৷ প্রাথমিকভাবে খুনের উদ্দেশ্যও জানা গিয়েছে৷ ধরা পড়া হত্যাকারী নিজেই জানিয়েছেন খুনের কারণ৷ এক ভিডিও বার্তায় তার স্পষ্ট স্বীকারোক্তি, ‘স্ত্রীকে ধর্ষণ করছিল, তাই খুন করেছি৷’

গত ২৮ আগস্ট ২৪ বছর বয়সি ব্রাজিলিয়ান ফুটবলার ড্যানিয়েল কোরেয়ার গলা কাটা মৃতদেহ উদ্ধার হয় পারানার রাজধানী শহর কিউরিটিবার দক্ষিণ প্রান্তের একটি গ্রামীণ অঞ্চল থেকে৷ কেটে নেওয়া হয়েছিল তার যৌনাঙ্গও৷ ২০১৫ সালে সাও পাওলো এফসি’তে যোগ দেওয়া মিডফিল্ডারকে চলতি বছরেই লিয়েনে দলে নিয়েছিল ব্রাজিলের দ্বিতীয় ডিভিশন ক্লাব সাও বেনতো৷

Un-1

খুনের তদন্তে নেমে সাউদার্ন পারানার পুলিশ গ্রফতার করে ৩৮ বছরের এডিনসন ব্রিটস জুনিয়র নামক এক ব্যক্তিকে৷ অপরাধ স্বীকার করে নিয়ে সে জানিয়েছে, চোখের সামনে স্ত্রীকে ধর্ষিতা হতে দেখে সে ঠিক সেটাই করেছে, যেটা আর পাঁচজন পুরুষের করা স্বাভাবিক৷ এমন নৃশংস হত্যাকাণ্ড ঘটানোর পরও তার মধ্যে অনুতাপের কোনও ছায়া নেই৷

পুলিশ গ্রেফতার করেছে তার স্ত্রী ক্রিশ্চিনা ব্রিটস ও কন্যাকেও৷

Untitle-1

এডিনসনের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, ঘটনা ঘটে তার মেয়ের ১৮ তম জন্মদিনের পার্টিতে৷ ড্যানিয়েল এডিনসনের বেডরুমের দরজা আটকে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করছিল৷ স্ত্রীর চিৎকার শুনে দরজা ভেঙে ঘরে ঢোকে এডিনসন৷ তখনও কোরেয়ার অত্যাচার জারি ছিল তার স্ত্রীর উপর৷ ঘটনার প্রতিক্রিয়ায় কোরেয়াকে খুন করে সে৷

এডিনসন ধর্ষণের তত্ত্ব খাড়া করে আত্মপক্ষ সমর্থনের চেষ্টা করলেও ক্রিশ্চিনার সঙ্গে কোরোয়ার সম্পর্কের খবর আগে থেকেই জানা ছিল অনেকের৷ ড্যানিয়েলের সঙ্গে ক্রিশ্চিনার ঘনিষ্ট মুহূর্তের বেশ কিছু ছবিও হাতে এসেছে পুলিশের৷

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending