মতলব উত্তরে ২ লাখ টাকার জাল বিনষ্ট, এক জেলেকে অর্থদন্ড

জাকির হোসেন বাদশা, মতলব (চাঁদপুর) ॥ গত ৭ অক্টোবর থেকে শুরু হওয়া ইলিশ রক্ষা অভিযানে মতলব উত্তরে গত ৪ দিনে ২ লাখ ৩৬ হাজার টাকার কারেন্ট জাল জব্দ করেছে উপজেলা প্রশাসন। জব্দকৃত জাল পুড়িয়ে বিনষ্ট করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি প্রায় দুই মণ ইলিশ জব্দ করা হয়েছে। এর যার আনুমানিক মূল্য ৪১ হাজার টাকা। মাছগুলো এতিমখানায় দিয়ে দেওয়া হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিস সূত্রে জানা গেছে, ৭ অক্টোবর থেকে ২৭ অক্টোবর পর্যন্ত ইলিশ সংরক্ষণ কার্যক্রমের জন্য নদীতে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ করেছে সরকার। এ লক্ষ্যে নির্ঘুম রাত কাটাচ্ছে মতলব উত্তর উপজেলা প্রশাসন। রাত দিন মেঘনা নদীতে অভিযান চালানো হচ্ছে।

গত ৭ অক্টোবর রাত সাড়ে চারটায় অভিযান শুরু করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। গত ৮ অক্টোবর বিকাল চারটায় সহকারি কমিশনার (ভূমি) শুভাশীষ ঘোষ অভিযান চালান। এসময় ৫০০ মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করেন। যার মূল্য আনুমানিক ২৫ হাজার টাকা ও ২০ কেজি ইলিশ যার ১০ হাজার টাকা জব্দ করেন তিনি। গত ৯ অক্টোবর অভিযান চালিয়ে ২৩ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, যার মূল্য ১ লাখ ৬১ হাজার জব্দ করে পুড়িয়ে ফেলা হয়। এবং ৪৪ কেজি ইলিশ জব্দ করা হয়, যার মূল্য ২৬ হাজার ৪০০ টাকা। মাছগুলো এতিমখানায় বিতরণ করা হয়। গত ১০ অক্টোবর অভিযান চালিয়ে ১ হাজার মিটার কারেন্ট জাল, যার মূল্য ৫০ হাজার টাকা ও ১০ কেজি ইলিশ যার মূল্য ৫ হাজার জব্দ করা হয়। একই অভিযানে উপজেলার মোহনপুর গ্রামের রাজ্জাক দেওয়ানের ছেলে ফারুক হোসেন (১৯) জেলেকে আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়। এছাড়াও ১ টি মাছ ধরার নৌকা জব্দ করে মোহনপুর নৌ পুলিশ ফাঁড়িতে আটক করে রাখা হয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, ইলিশ জাতীয় সম্পদ। এই সোনালী সম্পদ রক্ষার দায়িত্ব সকলের। আমাদের চাঁদপুর ব্যান্ডিং জেলা। তাই সকলের দায়িত্ব ইলিশ রক্ষা করা। নিষিদ্ধ সময়ে ইলিশ ধরা যাবে না। ৭-২৭ অক্টোবর নদীতে কোন জেলেকে পাওয়া গেলে আইনের আওতায় আনা হবে। তিনি আরও বলেন, জেলেদেরকে সরকার বিকল্প কর্মসংস্থানের জন্য উপকরণ ও খাদ্য সহায়তা দিচ্ছে।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending