রূপপুরের বিদ্যুৎ পাবে সারাদেশ

বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে প্রায় ১০ হাজার ৯৮২ কোটি টাকা ব্যয়ে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ লিমিটেড ২০২২ সালের মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে।

এ জন্য ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের উৎপাদিত বিদ্যুৎ ইভাকুয়েশনের জন্য সঞ্চালন অবকাঠামো উন্নয়ন’ শীর্ষক একটি প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনকে)।

মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেকের বৈঠকে প্রকল্পটি অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেন, বৈঠকে এ প্রকল্পসহ ১৫ হাজার  ৬৮৩ কোটি টাকা ব্যয়ের মোট ১৬টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

এসব ব্যয়ের মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে যোগান দেওয়া হবে ৫ হাজার ৭০৭ কোটি ৯৭ লাখ টাকা, প্রকল্প সাহায্য থেকে আসবে ৮ হাজার ৭৪০ কোটি টাকা এবং সংশ্লিষ্ট সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে পাওয়া যাবে এক হাজার ২৩৫ কোটি টাকা।

সভার কার‌্যপত্রে দেখা যায়, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রকল্পটি বাস্তবায়নে রাশিয়ার পর যুক্ত হচ্ছে ভারত। এ প্রকল্পটির ব্যয়ে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে এক হাজার ৫২৭ কোটি ৬৩ লাখ টাকা, ভারতীয় ঋণ থেকে ৮ হাজার ২১৯ কোটি টাকা এবং বাস্তবায়নকারী সংস্থা পাওয়ার গ্রিড কোম্পানির নিজস্ব তহবিল থেকে এক হাজার ২৩৫ কোটি ৬ লাখ টাকা ব্যয় করা হবে।

রূপপুরের বিদ্যুৎ তিন বিভাগের (ঢাকা, রাজশাহী, খুলনা) ১৩টি জেলার ৩৭টি উপজেলায় সরবরাহ করা হবে।

এজন্য ঢাকা জেলার ধামরাই ও সাভার উপজেলা, গাজীপুরের কালিয়াকৈর, মানিকগঞ্জের শিবালয়-ঘিওর-দৌলতপুর-মানিকগঞ্জ সদর, সাটুরিয়া ও সিংগাইর, টাঙ্গাইলের দেলদুয়ার-সদর, মির্জাপুর ও কালিহাতি, রাজবাড়ীর পাংশা ও বালিয়াকান্দি, ফরিদপুরের ভাঙ্গা-বোয়ালমারী ও মধুখালী এবং গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী ও মাকসুদপুর, রাজশাহী বিভাগের পাবনা জেলার ইশ্বরদী-সদর-সাঁথিয়া-সুজানগর-বেড়া ও আটঘরিয়া, নাটোরের বড়াইগ্রাম-গুরুদাসপুর ও সিংড়া, সিরাজগঞ্জের তারাশ ও শাহজাদপুর, বগুড়ার নন্দিগ্রাম-বগুড়া সদর ও কাহালু এবং খুলনা বিভাগের কুষ্টিয়া জেলার খোকসা ও কুমারখালী, মাগুরা জেলার শ্রীপুর উপজেলায় এ সঞ্চালন প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হবে।

প্রকল্পের আওতায় প্রধান কার্যক্রম হচ্ছে- ৬০৯ কিলোমিটার ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন নির্মাণ,  রূপপুর-ঢাকা (আমিনবাজার-কালিয়াকৈর) ১৫৪ কিলোমিটার ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন নির্মাণ, রূপপুর-গোপালগঞ্জ ১৫০ কিলোমিটার ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন স্থাপন, রূপপুর-বগুড়া ১০২ কিলোমিটার ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন, রূপপুর-ধামরাই ১৫২ কিলোমিটার ৪০০ কেভি ডাবল সার্কিট সঞ্চালন লাইন এবং রূপপুর বাঘাবাড়ি ৬০ কিলোমিটার ২৩০ কেভি সঞ্চালন ডাবল সার্কিট লাইন নির্মাণ।

Print Friendly
User Rating: 5.0 (1 votes)
Sending