হবিগঞ্জে সাংবাদিকদের সাথে পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহ’র মতবিনিময়

মোঃ মামুন চৌধুরী, হবিগঞ্জ:  হবিগঞ্জের নবাগত পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহ বলেছেন- হবিগঞ্জকে মাদকমুক্ত করার জন্য ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি গ্রহণ করা হবে। মাদক ব্যবসায়ীদের গ্রেফতারে পুলিশের অভিযান চলবে।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে হবিগঞ্জ শহরে কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন- মাদকের প্রভাবে শুধু একজন ব্যক্তি নয়, ধংস হচ্ছে একটি পরিবার, একটি সমাজ। মাদকের ভয়াবহতা থেকে মুক্তি পেতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে।

তিনি বলেন- মাদকের উৎসস্থল বন্ধ করতে হবে অন্যথায় মাদকমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করা কঠিন হয়ে পড়বে। উদাহরণ হিসেবে তিনি বলেন- যেসব ঘরকে মশকমুক্ত রাখার জন্য জানালায় নেট ব্যবহার করা হয়, সেসব ঘরের নেট যদি খুলে দেয়া হয় তাহলে ঝাঁকে ঝাঁকে মশা ঘরে প্রবেশ করবে। ঘরে বসবাসকারীরা একটা মশা মারলে দশটা মশা তাদের আক্রমণ করবে। আর যদি নেট বন্ধ থাকে তাহলে ঘরে মশা ঢুকতেই পারবে না। কাজেই মাদকের উৎসস্থল বন্ধ না করলে মাদক সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে ছড়িয়ে যাবে।

যেহেতু হবিগঞ্জ সীমান্তবর্তী এলাকা, তাই এখানে সীমান্ত দিয়ে বিভিন্ন ধরনের মাদক আসতে পারে। সীমান্ত দিয়ে যাতে মাদক আসতে না পারে সে ব্যাপারে দায়িত্বশীলদের ভূমিকার কথা উল্লেখ করে পুলিশ সুপার বলেন- ভবিষ্যৎ প্রজন্মের জন্য মাদকমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে হবে।

তিনি আরো বলেন, আমরা জঙ্গীবাদ দমনে বিশ্বদরবারে যেভাবে প্রশংসিত হয়েছি একইভাবে মাদকমুক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠায় প্রশংসা কুড়াতে পারবো। উন্নত দেশগুলোতে সন্ত্রাস আছে। কিন্তু আমরা সন্ত্রাসকে শক্ত হাতে দমন করতে পেরেছি বলে বিশ্বের মতো আমাদের দেশে সন্ত্রাস নেই।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ উল্লাহ বলেন- হবিগঞ্জ জেলাকে দাঙ্গা মুক্ত করতে পুলিশের অব্যাহত অভিযান থাকবে। হবিগঞ্জ শহরকে যানজট মুক্ত করতে পুলিশ কার্যকর পদপে গ্রহণ করবে। সকলের সহযোগিতা নিয়ে আইন শৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে রেখে হবিগঞ্জকে অপরাধমুক্ত মডেল জেলা হিসেবে গড়ে তুলবো। এ জন্য সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, রাজনীতিবিদসহ সকলের সহযোগিতা কামনা করেন পুলিশ সুপার।

মতবিনিময় সভায় হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালকে দালালমুক্ত করার জন্য প্রয়োজনীয় পদপে নেয়ার দাবি জানালে পুলিশ সুপার বলেন- হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালটি সির্ভিল সার্জনের আওতায়। তিনি আমাদের কাছে সহযোগিতা চাইলে আমরা সহযোগিতা করবো।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রবিউল ইসলাম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা, সহকারী পুলিশ সুপার এসএম রাজু আহমেদ, সহকারী পুলিশ সুপার পারভেজ আলম চৌধুরী, সহকারী পুলিশ সুপার মোহাম্মদ নাজিম উদ্দিন, হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ওসি সহিদুল ইসলাম প্রমূখ।

বক্তৃতা করেন হবিগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি দৈনিক খোয়াই’র সম্পাদক শামীম আহছান, সাবেক সভাপতি দৈনিক হবিগঞ্জের জনতার এক্সপ্রেস সম্পাদক মোঃ ফজলুর রহমান, প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি দৈনিক খোয়াই’র যুগ্ম সম্পাদক হারুনুর রশিদ চৌধুরী, সাবেক সভাপতি মোহাম্মদ নাহিজ, সাধারণ সম্পাদক রাসেল চৌধুরী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী মোহাম্মদ ফরিয়াদ, দৈনিক জনকন্ঠের সংবাদদাতা রফিকুল হাসান চৌধুরী তুহিন, প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট শাহ ফখরুজ্জমান, ভোরের কাগজের জেলা প্রতিনিধি শফিকুল আলম চৌধুরী, জেলা সাংবাদিক ফোরামের সভাপতি শাকিল চৌধুরী, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভি প্রতিনিধি আবু ছালেহ নুরুজ্জামান চৌধুরী শওকত, হবিগঞ্জ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মো. ছানু মিয়া, সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ নূর উদ্দিন প্রমুখ।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending