সিলেট টেস্ট॥২৮২ রানে অলআউট জিম্বাবুয়ে

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ প্রথম দিন শেষে বাংলাদেশ দলের প্রতিনিধি হয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসে পেসার আবু জায়েদ রাহী বলেছেন, ‘ওদের একটা উইকেট পড়লেই কিন্তু টেল এন্ডাররা চলে আসবে। আমার মনে হয়, আমাদের লক্ষ্য থাকবে আগে এক উইকেট নেওয়া। সেটা হলে ওদের ৩২০ রানের মধ্যে থামিয়ে দিতে পারব।’ সেটা ২৮২তেই সম্ভব হলো।
সিলেট টেস্টের প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানে অলআউট হয়েছে জিম্বাবুয়ে। তাইজুল ইসলাম নিয়েছেন ৬ উইকেট।
দ্বিতীয় দিনে রেগিস চাকাভাকে আউট করার পর ওয়েলিংটন মাসাকাদজাকেও ফিরিয়েছেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি স্পিনারের অফ স্টাম্পের বল মাসাকাদজার ব্যাটের কানায় লেগে উইকেটরক্ষক মুশফিকুর রহিমের গ্লাভসে জমা হয়। ইনিংসে এটি তাইজুলের চতুর্থ উইকেট। ২৮ বলে ৪ রান করেন মাসাকাদজা।
এরপর ব্রেন্ডন মাভুতাকে ফেরান নাজমুল ইসলাম অপু। বাঁহাতি স্পিনারের সোজা বল ডিফেন্ড করতে চেয়েছিলেন মাভুতা। কিন্তু বলের লাইন মিস করে হন এলবিডব্লিউ (৩)। ইনিংসে এটি অপুর দ্বিতীয় উইকেট।
কাইল জার্ভিসকে ফিরিয়ে ইনিংসে নিজের পঞ্চম উইকেট নেন তাইজুল ইসলাম। বাঁহাতি স্পিনারের বলে বড় শট খেলতে চেয়েছিলেন জার্ভিস। ব্যাটের কানায় লেগে বল যায় উইকেটের পেছনে। প্রথম স্লিপে দারুণ এক নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। টেস্টে এ নিয়ে চতুর্থবার পাঁচ উইকেট নিলেন তাইজুল।
পরের বলে টেন্ডাই চাতারাকেও ফিরিয়ে জিম্বাবুয়ের ইনিংসের ইতি টানলেন তাইজুল ইসলাম। দ্বিতীয় ইনিংসে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনাও থাকল বাঁহাতি স্পিনারের সামনে।

দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চের আগে প্রথম ইনিংসে ২৮২ রানে অলআউট হয়েছে জিম্বাবুয়ে। ২১ রানে তার হারিয়েছে শেষ ৫ উইকেট। পিটার মুর অপরাজিত ছিলেন ৬৩ রানে। ১৯২ বলে ৬ চারে ইনিংসটি সাজান ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

১০৮ রানে ৬ উইকেট নিয়ে বাংলাদেশের সেরা বোলার তাইজুল। দ্বিতীয় দিনে জিম্বাবুয়ের পাঁচ উইকেটের চারটিই নিয়েছেন তিনি। ৪৯ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন আরেক বাঁহাতি স্পিনার অভিষিক্ত নাজমুল ইসলাম অপু। পেসার আবু জায়েদ রাহী ৬৮ রানে ও অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ ৩ রানে পেয়েছেন একটি করে উইকেট। মেহেদী হাসান মিরাজ ২৭ ওভারে ৪৫ রানে উইকেটশূন্য ছিলেন।

স্কোর: জিম্বাবুয়ে ২৮২/১০ (১১৭.৩ ওভার)।
Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending