হাতুড়ির পিটুনির টুংটাং শব্দে মুখরিত ভোলার কামারশালা

জুবায়ের চৌধুরী পার্থ, ভোলা:  ঈদ-উল-আযহার আর মাত্র কয়েকদিন বাকি। তাই ব্যস্ততা বেড়েছে কামারশালার কারিগরদের। আগুনের ফুলকিতে গরম লোহায় দিন রাত হাতুড়ির পিটুনির টুংটাং শব্দে মুখরিত এখন কামারশালা।

কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে ভোলার কালিনাথ রায়ের বাজার কামার পল্লী, ইলিশা বাজার, পরানগঞ্জ বাজার, ভেলুমিয়া বাজার, ঘুইংগারহাট, বাংলাবাজারে দম ফেলার সময় নেই। দা বঁটি চাকু চাপাতি কুড়ালসহ লোহার যন্ত্র তৈরির কারিগরদের। কোরবানির পশু কাটাকাটিতে চাই ধারালো দা বঁটি ও ছুরি। ভোলা সদর উপজেলার কামারদের দোকানগুলো এখন ব্যস্ত সময় পার করছে।

আবার কোরবানীর পশুর চামড়া ছেঁড়ার কাজটি সহজ ও স্বাচ্ছন্দের সহিত সম্পন্ন করতে অনেকে পুরাতন দা বঁটি সংস্কারের জন্য নিয়ে আসছেন কর্মকারদের কাছে।

ঈদের বিপুল চাহিদার জোগান দিতে একমাস আগে থেকেই এসব যন্ত্রপাতি তৈরির কাজ শুরু হলেও শেষ মুহূর্তে এসে কাজের চাপ বেড়ে যাওয়ায় দিন-রাত সমান তালে কাজ করতে হচ্ছে।

দীর্ঘ দিন থেকে লোহার যন্ত্রপাতি তৈরি করা উপজেলার ইলিশার হাট বাজারের লক্ষন মাঝি ও মঙ্গল দাস জানান, পূর্ব পুরুষের পেশা হিসেবে তারাও যুক্ত হন এ পেশায়। ঈদকে সামনে রেখে প্রতিদিন যন্ত্রপাতি বিক্রি হচ্ছে।

কারিগররা জানান এ পেশায় পরিশ্রমের চেয়ে পারিশ্রমিক কম। তাইতো সময়ের বির্বতনে কোন কোন কর্মকার জীবিকার তাগিদে পূর্ব-পুরুষের পেশা ছেড়ে অন্য কাজে ঝুকে পড়ছেন। সারাদিন আগুনের পাশে বসে কাজ করতে হয়, তবুও পূর্ব-পুরুষের রেখে যাওয়া এই পেশায় উৎসাহের কমতি নেই কামার পল্লীর এসব কর্মকারদের।

Print Friendly
User Rating: 5.0 (1 votes)
Sending