পরোক্ষ ধূমপানে হুমকির মুখে শিশু স্বাস্থ্য

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ আগামী ৯ অক্টোবর জাতীয় তামাকমুক্ত দিবস। এ উপলক্ষে ৬ অক্টোবর রোববার  ছোট ভাট মসজিদ, লালবাগ এর নূর কিন্ডারগার্টেনে “পরোক্ষ ধূমপান শিশু স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি, প্রতিকারে করনীয়” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সুবন্ধন সামাজিক কল্যাণ সংগঠন এর সভাপতি হাবিবুর রহমান হাবিবের এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এইড ফাউন্ডেশনের সিনিয়র প্রোগ্রাম অফিসার মোঃ হাসিবুল হক।

সভায়  বক্তব্য রাখেন পরিবেশ আন্দোলন মঞ্চের সভাপতি আমির হাসান মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক জি.এম রোস্তম খান। সঞ্চালনা করেন, সুবন্ধন সামাজিক কল্যান সংগঠন এর সহ- সভাপতি মোঃ ফারুক হোসেন।

বক্তারা বলেন, তামাক একদিকে যেমন অর্থনীতি ও পরিবেশকে ক্ষতিগ্রস্থ করছে। অপরদিকে আগামী প্রজন্মর সুস্থ স্বাভাবিকভাবে বেড়ে উঠাকে বাধাগ্রস্থ করছে। গৃহে, পাবলিক প্লেস ও পরিবহনে পরোক্ষ ধূমপানের ভয়াবহ শিকার শিশুরা। পরোক্ষ ধূমপানের ফলে শিশুর ধমনির ক্ষতি হতে পারে। এতে পরিণত বয়সে তাদের হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকি বেড়ে যায়। শিশুরা এমনিতে দ্রুত শ্বাস নেয়, তা ছাড়া তাদের শ্বাসতন্ত্রও অপরিণত। তাই সিগারেটের ধোঁয়া সহজেই শিশুদের শ্বাসতন্ত্রে  প্রবেশ করে সমূহ ক্ষতি করে। পরো ধূমপানের কারণে শিশুর নিউমোনিয়া,  ব্রংকাইটিস, হাঁপানি ইত্যাদি রোগ হয়।

বক্তারা আরো বলেন,  পরোক্ষ ধূমপানের শিকার মানুষের শরীরের শ্বেত রক্তকণিকা ঠিকমতো কাজ করতে পারে না। ফলে শিশু অল্পতেই রোগাক্রান্ত হয়। শিশুর স্বাভাবিক বেড়ে ওঠা ও মানসিক বৃদ্ধি ব্যাহত হয় সিগারেটের ধোঁয়ায়।  গর্ভাবস্থায় মা ধূমপান করলে সন্তানের মারাত্মক ক্ষতি হয়। কারণ, গর্ভস্থ সন্তানের শরীরে যে রক্ত বাহিত হয়, তার অক্সিজেন ধারণ ক্ষমতা কমিয়ে দেয় তামাকের কার্বন মনোক্সাইড। নিকোটিন গর্ভফুলের রক্ত সরবরাহ  হ্রাস করে। ফলে মায়ের শরীর থেকে পর্যাপ্ত পুষ্টি গর্ভস্থ সন্তানের শরীরে যেতে পারে না, তাই শিশুর বৃদ্ধিও ব্যাহত হয়। এ ছাড়া ধূমপানের কারণে গর্ভপাত কিংবা অপরিণত শিশু জন্মাতে পারে। এই অপরিণত শিশুরা আবার সংক্রমণ বা অন্য কোনো কারণে মৃত্যুর ঝুঁকির মধ্যে থাকে। এর ক্ষতিকর প্রভাব শিশুদের মারাত্বকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ করছে। এ অবস্থা থেকে উত্তোরণে নিজেদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধি এবং যার যার অবস্থান থেকে, নিজ পরিবার এবং বাসা থেকে এগিয়ে আসতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন বাস্তবায়ন এবং এসডিজির লক্ষ অর্জনে তামাকের ব্যবহার কমিয়ে আনার বিকল্প নেই।

উন্মুক্ত পর্বে আলোচনা করেন, সুবন্ধনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ মকবুল হোসেন,  সহ-সাধারণ সম্পাদক মহসীন সুমন, গণমাধ্যম কর্মী মোঃ আনোয়ার হোসেন, নদীকর্মী আব্দুস সালাম সময়, নূর কিন্ডারগার্টেনের প্রিন্সিপাল সোমা রহমান, মানবাধিকার কর্মী মোঃ আব্দুল জলিল প্রমূখ।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending