নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সচেতনতা সপ্তাহে ধামরাইয়ে ব্যাপক পুলিশি তৎপরতা

রাসেল হোসেন, ধামরাই: সারা দেশের ন্যায় ঢাকার ধামরাইয়ে নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সচেতনতা সপ্তাহ উদযাপনে ধামরাই কমিউনিটি পুলিশিং এর দিনব্যাপী প্রতিটি ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, মহল্লায় মহল্লায় চলছে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক অনুষ্ঠান।

বৃহস্পতিবার (৫ নভেম্বর)  সকাল থেকেই বিভিন্ন এলাকায় ধামরাই থানা পুলিশের উদ্যোগে নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সচেতনতা সপ্তাহ উদযাপন করা হচ্ছে।

সকালে ধামরাই উপজেলা চত্বর, কুল্লা ইউনিয়ন, ভাড়াড়িয়া ইউনিয়ন, ধামরাই সদর ইউনিয়ন পরিষদসহ প্রতিটি ইউনিয়ন, ওয়ার্ড পর্যায়ে, পারা মহল্লায় প্রতিটি বাড়ির মালিক, ভাড়াটিয়াদের মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ সম্পর্কে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য আলোচনা সভা ও ফরম বিতরণ করা হয় ।

নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সচেতনতা সপ্তাহ দিবস উপলক্ষে কুল্লা ইউনিয়নের বউবাজার এলাকায় নাগরিক তথ্য সংগ্রহের অনুষ্ঠানে ধামরাই থানার অফিসার ইনচার্জ দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, আপনারা যারা বাড়ির মালিক আছেন তাদের বাড়িতে কোন ভাড়াটিয়া আছে তার যাবতীয় তথ্য  সংগ্রহ করে পুলিশের কাছে জমা দিবেন। ওসি অন্যান্য কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে প্রতিটি এলাকায় ভাড়াটিয়াদের তথ্য সংগ্রহ ফর্ম বিতরণ করেন।

ফর্ম বিতরণ করার সময়ে ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, আপনার বাড়ির ভাড়াটিয়ার সঠিক তথ্য, নাম ঠিকানা, পূর্বে কোন এলাকায় ছিল তার পুরো ঠিকানা দিবেন। কারণ আপনার ভাড়াটিয়া কি মাদকসেবি না মাদক বিক্রেতা, না জঙ্গিবাদ বা খুনের সাথে জড়িত তা যাচাই-বাছাই করার জন্য এই ফর্মগুলো পূরণ করে থানায় জমা দিবেন।

তিনি (ওসি) আরো বলেন, আপনারা যে কোন সমস্যা নিয়ে আমার কাছে যাবেন। আমার দরজা আপনাদের জন্য খোলা। আর থানায় গিয়ে সঠিক বিচার না পেলে আমাকে বলবেন, কোন দালালের খপ্পরে পড়বেন না।

কুল্লা ইউনিয়নের বউ বাজার এলাকায় বাড়ির মালিকদের কাছে ফর্ম বিতরণের সময়ে ধামরাই থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশন)  মাসুদুর রহমান বলেন, অপরাধী, সন্ত্রাসী, মাদকসেবি, জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্যরা আপনার বাসায় ভাড়া থাকতে পারে। তাই তাদের পুরো তথ্য আমাদের কাছে থাকা জরুরি। আপনার সন্তান কার সাথে থাকে সে দিকে খেয়াল রাখবেন। কারণ,কিছুদিন পূর্বে এক হোন্ডা ছিনতাইকারিকে আটক করে  তার মাধ্যমে বিভিন্ন এলাকা থেকে ৮টি মোটরসাইকেল উদ্ধার করা হয়েছে। কেউ জানতোনা তিনি একজন গাড়ি চোরাই চক্রের সদস্য। আপনাদের এলাকা থেকে যে কোনো অপরাধীর সম্পর্কে ধামরাই থানা পুলিশকে জানাবেন এবং প্রয়োজনে আপনাদের পরিচয় গোপন রেখে  ফোন দিবেন। যে কোন সময়ে ফোন ধরা হবে।

কুল্লা ইউনিয়নের কমিউনিটি পুলিশিং এর সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, আমি কুল্লা ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে, পাড়া মহল্লায় গিয়ে বাড়ির মালিক ও সকল পেশার মানুষের সাথে কথা বলবো যাতে তারা এলাকার মাদকসেবি, সন্ত্রাসের পরিচয় থানা পুলিশকে জানায়।

কুল্লা ইউনিয়নে নাগরিক তথ্য সংগ্রহ সচেতনতা সপ্তাহ উদযাপন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন কুল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বাবু কালীপদ সরকার, পুলিশ উপ-পরিদর্শক সিকান্দার হোসেন, কুল্লা ইউনিয়নের ৩ নং ইউপি সদস্য বোরহান উদ্দিন, কু্ল্লা ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান প্রমুখ।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending