সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স’র নতুন সিইও মীর রাশেদ বিন আমান

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স এর নতুন সিইও হলেন মীর রাশেদ বিন আমান। তিনি কোম্পানীর সাবেক সিইও অজিত চন্দ্র আইচ’র স্থলাভিশিক্ত হলেন।

সম্প্রতি রাজধানীর মালিবাগে সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্সের প্রধান কার্যালয় ইম্পিরিয়াল কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত এক অনাড়ম্বর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তিনি এই দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

বাংলাদেশের প্রথম এবং পূর্নাঙ্গ তথ্য প্রযুক্তি নির্ভর সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেড’র নতুন সিইও মীর রাশেদ বিন আমানের দায়িত্বগ্রহণ অনুষ্ঠানে অন্যানের মাঝে আরো উপস্থিত ছিলেন কোম্পানীর প্রতিষ্ঠাতা বিজিএমইএ’র সাবেক প্রেসিডেন্ট মোস্তফা গোলাম কুদ্দুসসহ কোম্পানীর বিভিন্ন স্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ।

২০১৩ সাল হতেই মীর রাশেদ বিন আমান সোনালী লাইফের ডেপুটি ম্যানেজিং ডিরেক্টর এবং পরে এডিশনাল ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিএফও হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

মীর রাশেদ বিন আমান ১৯৮৪ সালে পুরনো ঢাকার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। তার পিতার নাম মীর এনামুল করিম আমান এবং মাতা রুবিনা আমান। তার শিক্ষা জীবনের শুরু ভারতের দার্জিলিং এর মাউন্ট হারমান স্কুলে এবং পরবর্তীতে অট্রেলিয়ার ইউনিভার্সিটি অফ টেকনোলজি,সিডনিতে একাউন্টসের উপর স্নাতোকত্তর ডিগ্রী লাভ করেন। এরপর চাটার্ড একাউন্টর্স ডিগ্রী লাভের আসায় লেখাপড়া অব্যাহত রাখেন। পাশাপাশি তিনি পৃথিবীর বিখ্যাত আর্থিক প্রতিষ্ঠান আমেরিকান এক্সপ্রেস ব্যাংকে চাকরী করেছেন। কিন্তু দেশে ইতিবাচক একটা কিছু করার আশাায় ৮ বছরের ব্যাংকিং জীবনের ইতি টেনে সৃজনশীল মানুষ মীর রাশেদ বিন আমান মাটির টানে বাংলাদেশে চলে আসেন এবং যুক্ত হন সোনালী লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীতে। চতুর্থ প্রজম্মের এ লাইফ ইন্সুরেন্স কোম্পানীকে তিনি বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র তথ্য-প্রযুক্তি নির্ভর কোম্পানীতে রুপান্তরিত করেন। তার ঐকান্তিক প্রচেস্টায় সোনালী লাইফ বাংলাদেশের জীবন বীমা সেক্টরে মাত্র ৭ দিনে বীমা দাবী মেটিয়ে এক যুগান্তকারী দৃস্টান্ত স্থাপন করতে সক্ষম হয়।

ব্যক্তিগত জীবনে মীর রাশেদ বিন আমান বিবাহিত। তার স্ত্রী মিস ফওজিয়া কামরুন তানিয়া এবং তাদের দুটি পুত্র সন্তান রয়েছে।

Print Friendly
User Rating: 5.0 (1 votes)
Sending