রিয়া গ্রেফতার, সামনে এল ড্রাগ তথ্য

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ তিনদিন জেরার পর গ্রেফতার হল রিয়া চক্রবর্তী । নারকোটিকস কন্ট্রোল ব্যুরো সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর মামলায় মূল অভিযুক্ত তাঁর বান্ধবী রিয়া চক্রবর্তীকে গ্রেফতার করল। সুশান্তের বাবার অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু হয়।

গ্রেফতারির পরেই জানা যাচ্ছে আরও বিভিন্ন তথ্য। রিয়াকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ২১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত হেফাজতের থাকবেন তিনি। এর সঙ্গেই জানা গিয়েছে যে ড্রাগ সিন্ডিকেটে সক্রিয়ভাবে উপস্থিতি রয়েছে রিয়া ও তার ভাই সৌভিক চক্রবর্তীর।

মাদক মামলায় তাঁর নাম উঠে আসে। রিয়া ও তাঁর ভাই শৌভিক সুশান্তকে ড্রাগ দিয়েছিলেন বলে অভিযোগ ওঠে।

আগেই রিয়ার ভাই শৌভিক ও সুশান্তের ম্যানেজার মিরান্ডা ও স্টাফ দীপেশকে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এরপর গত তিনদিন পরপর জেরা করা হয় রিয়াকে। মঙ্গলবার শুরু হয় অভিনেত্রীর গ্রেফতারির প্রক্রিয়া। মেমো তৈরি হয় । বিকেল ৫ টা নাগাদ তাঁকে আনুষ্ঠানিকভাবে গ্রেফতার করা হয় বলে জানা গিয়েছে।

গ্রেফতার করা র পর রিয়াকে মেডিক্যাল টেস্টে জন্য নিয়ে যাওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে। এরপর বাকিদের সঙ্গে তাঁকে আদালতে তোলা হবে। ৯ সেপ্টেম্বর ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আদালতে হাজিরা দেবেন তাঁরা।

জানা গিয়েছে, রিয়া চক্রবর্তী ইতিমধ্যেই স্বীকার করেছেন যে তিনি গাঁজা ও অন্যান্য ড্রাগ নিয়েছিলেন। শুধু তাই নয়, সুশান্তের কোনও এক ছবির সেটে ড্রাগ নেওয়া হয়েছিল বলে জানিয়েছেন রিয়া।

প্রায় ২৫ জন বলিউড তারকার নাম করেছেন রিয়া এবং সৌভিক। আগামী ১০-১২ দিনের মধ্যে বলিউডের এই তারকা দের তলব করবে এনসিবি। রিয়া চক্রবর্তীর দাবি ছিল কেদারনাথ ছবির সেটে নিয়মিত গাঁজা নিতেন সুশান্ত সিং রাজপুত।

রিয়া চক্রবর্তীর আইনজীবী সতীশ মানসিন্দে বলেছিলেন, “সুশান্তের জীবনে রিয়া আসার অনেক আগে থেকেই তিনি মাদক নিতেন। রিয়া এমনকি এও জানতেন যে ২০১৬- ২০১৭ সালে কেদারনাথ এর শুটিং চলাকালীন তিনি নিয়মিত গাঁজা খেতেন। রিয়া তার জীবনে আসার পর তিনি মাদকাসক্ত হয়েছিলেন এমন নয়। চিকিৎসকের বারণ সত্তেও সুশান্ত মাদক নিতেন।”

সম্প্রতি রিয়া চক্রবর্তী সুশান্ত সিং রাজপুতের দিদি প্রিয়াঙ্কা সিং এবং মিতু সিং এবং দিল্লির চিকিৎসক তরুণ কুমার এর বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগে এফআইআর দায়ের করেছেন মুম্বাই পুলিশের কাছে। রিয়ার দাবি কোনোরকম কনসাল্ট না করে সুশান্তকে এরা ওষুধ প্রেসক্রাইব করেছিলেন।

Print Friendly
User Rating: 5.0 (1 votes)
Sending