বদরুজ্জামান জামান এর কবিতা

নবনিতার অশ্রুনদী

নবনিতার একান্তে ছিল অশ্রুনদী ।
যখন একটু সুখ বইতো ঝরতো জলের মতো,
দুঃখ হারাতে অশ্রুতে যার সুখ।
দুঃখ বিলাসী নবনিতার চোখে স্বপ্ন ছিল,আহত স্বপ্ন ।
সভ্যতার নিষিদ্ধ আনন্দ বইতো তার দেহে।

প্রাগৈতিহাসিক জীবনের মগ্নতা;
মনুষ্য সমাজে বন্যের আধিপত্য ;
হিংস্র ছোবল নবনিতার নিয়তি।

ঘৃনার আবরণে মোড়ানো কিছু মানুষের
উলঙ্গ আহার্যতা- যার পৃথিবীকে করেছিল নিষিদ্ধ পল্লী ।
নিষ্পাপ থেকে নিষিদ্ধ তারপর নিঃশেষ জীবন ।

করুন কীর্তি কখনো কিছু মানুষের কৃতিত্ব হয়।
নবনিতার নিঃশেষ জীবনের অনিঃশেষ ভাবনাগুলো
আজো বহন করে নিষিদ্ধ পল্লীর অসংখ্য নবনিতা,
নিষ্পাপ থেকে নিষিদ্ধ তারপর তারাও নিঃশেষ হয়।

 

মৃত্যুই নমস্য মৃত্যুই তপস্য

 

মৃত্যুর সংবাদ শুনে কারো জন্য কাঁদবো
এমন কেউ আর নেই; যারা ছিল
তারা মরে গেছে একেক করে সব …।

আমি মৃত্যুর প্রতীক্ষায় থাকি সারাক্ষণ
মৃত্যু মানে জীবনাবসান নয়; নবজীবনের সূচনা।

পৃথিবীতে প্রতি সেকেন্ডে কত মানুষ
মৃত্যুকে নিয়ে সংসার গড়ে আর কত মানুষ
সংসার বিরাগী হয় এই হিসাব জানা
আমার তেমন জরুরী নয় ।

আমি কৃষ্ণপক্ষ অতিক্রান্ত শুভ্র নমস্য প্রহর
খুঁজি কাঙ্ক্ষিত মৃত্যুতে ।
মৃত্যুই নমস্য মৃত্যুই তপস্য।

 

যাপিত জীবন সুখ

 

দাঁড়িয়ে বসে হেঁটে, এখন খুব ব্যস্ত
নির্ঘুম দিবারাত আপন ঘাড়ে ন্যস্ত।
কেউ ক্লান্ত শোকে-দুখে
আমি খুব ক্লান্ত সুখে…।
যাপিত জীবন সুখে কতকিছু ন্যস্ত।

 

হিসেবি দিনগুলো

 

খরগোশ গতিতে দিন রাত চলছে,
কচ্ছপ গতি নিয়ে সফলতা বলছে-
‘ব্যর্থ’- বলে কিছু নেই
চেষ্টা সফল ভেবেই,
হিসেবি দিনগুলো নানা ছলে চলছে।

Print Friendly
User Rating: 0.0 (0 votes)
Sending