জাতীয় বীর ড. সামাদের প্রয়াণে শোক

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ বিসিএস মুক্তিযোদ্ধা ও মুজিবনগর কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. এস এ সামাদ বুধবার (২৮ জুলাই) বিকেলে তার বারিধারার বাসভবনে ইন্তেকাল করেন। ইন্না লিল্লাহে ওয়া ইন্না ইলাহি রাজেউন। তার বয়স হয়েছিল ৭৯ বছর। তার মৃত্যুতে সমিতির বীর মুক্তিযোদ্ধা অফিসার ও কর্মচারীরা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

সমিতির মহাসচিব মোহাম্মদ মুসা বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা ড. সামাদ প্রজাতন্ত্রের বীর মুক্তিযোদ্ধাদের হৃদয়ে একজন জাতীয় বীর হিসেবে চির স্মরণীয় হয়ে থাকবেন এবং আমরা এই মহান বীরকে স্যেলুট জানাই। ১৯৭৫ এর আগস্ট পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ যখন ভয়-আতঙ্কের নিকষ কালো আঁধারে ঢেকে গিয়েছিল, তখন ড. সামাদ সচিবালয় থেকে জেলা-উপজেলায় সফর করে প্রজাতন্ত্রের দেশপ্রেমিক কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের হৃদয়ে আশার আলো জ্বালিয়ে তুলেছিলেন এবং মুক্তিযুদ্ধের বীরত্বে ও বিক্রমে সকলকে পুণরুজ্জীবিত করে তুলেছিলেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আহবানে পাকিস্তান সরকারের উচ্চপদস্থ যে সকল কর্মকর্তা প্রবাসে গিয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার গঠন করেছিলেন, তিনি তাদের অন্যতম। ১৯৯৬ সালে বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মুক্তিযুদ্ধের সরকার পুন:প্রতিষ্ঠিত হলে তিনি সেই সরকারের মুখ্য সচিবের গুরুদায়িত্ব পালন করেন। সুদীর্ঘ চার দশকের অধিক এই মহান দেশপ্রেমিক বীর মুক্তিযোদ্ধা বাংলাদেশের জন্য জীবন উৎসর্গ করে বাংলাদেশের ভাগ্য উন্নয়নে অবদান রেখে গেছেন।

মোহাম্মদ মুসা বলেন, ড. সামাদ গত ২০০০ সাল থেকে সমিতির সভাপতির দায়িত্ব পালনকালে রাজধানী ঢাকা থেকে বাংলাদেশের জেলা-উপজেলা পর্যন্ত বিভিন্ন সভা ও সেমিনারের মাধ্যমে প্রজাতন্ত্রে কর্মরত সকল কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আদর্শ সঞ্চারিত করে গেছেন।

আমরা তার বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করি।

Print Friendly

Related Posts