প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না

বিডিমেট্রোনিউজ ডেস্ক ॥ করোনা মহামারির কারণে এ বছরের প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী (পিইসি) ও সমমানের পরীক্ষা বাতিল করেছে সরকার। মঙ্গলবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পঞ্চম শ্রেণির পাবলিক পরীক্ষা বাতিলের প্রস্তাব গ্রহণ করেছেন বলে তিনি জানান।

তিনি বলেন, এ বছর আবার স্কুল খুললে তখন শিক্ষার্থীরা বার্ষিক পরীক্ষায় অংশ নেবে।

এ বছরের পিইসি ও সমমানের ইবতেদায়ি শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষা বাতিলের অনুমোদন চেয়ে গত ১৯ আগস্ট প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রস্তাব পাঠিয়েছিল।

পঞ্চম শ্রেণির পিইসি এবং সমমানের পরীক্ষা নভেম্বর মাসে হওয়ার কথা ছিল। প্রায় ৩০ লাখ শিক্ষার্থী পিইসি পরীক্ষায় অংশ নেবে বলে আশা করা হচ্ছিল।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে সরকার ১৭ মার্চ দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ঘোষণা করে। এরপর, ৩১ আগস্ট পর্যন্ত বন্ধ বাড়ানো হয়।

দেওয়া হবে না প্রাথমিক বৃত্তি

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আকরাম-আল-হোসেন জানান, এ বছর যেহেতু পিইসি পরীক্ষা হচ্ছে না, তাই, ফলাফলের ভিত্তিতে কোনো বৃত্তিও দেওয়া হবে না।

প্রতি বছর সমাপনী পরীক্ষার ফলাফলের ভিত্তিতে সরকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের এক লাখ পাঁচ হাজার শিক্ষার্থী ও মাদ্রাসা থেকে ৮২ হাজার ৫০০ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দেওয়া হয় বলে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সেপ্টেম্বরে স্কুল খোলার সম্ভাবনা নেই

সরকারের একজন সচিব জানান, দেশে করোনাভাইরাস পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় সেপ্টেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো পুনরায় নাও খুলতে পারে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের শীর্ষ কর্মকর্তাদের সঙ্গে পরামর্শ করেই বিদ্যালয় পুনরায় খোলার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া নেবে।

তিনি বলেন, ‘আমরা যদি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলি, তবে কঠোর স্বাস্থ্যবিধি মেনেই স্কুলগুলোতে পরীক্ষা ও অন্যান্য কার্যক্রম পরিচালনা করতে হবে।’

Print Friendly
User Rating: 5.0 (1 votes)
Sending