পাথরঘাটার কৃষকরা আলুর ক্ষেত পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন 

ইফতেখার শাহীন, বরগুনা: তীব্র শীতকে উপেক্ষা করে সকাল থেকেই ফসলের মাঠে অক্লান্ত পরিশ্রম করে অধিক লাভের আশায় আলুর ক্ষেত পরিচর্যায় ব্যস্ত সময় পার করছেন বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার প্রান্তিক কৃষকরা।

এ মৌসুমে উপজেলার কাকচিরা ইউনিয়নের জালিয়াঘাটা, শিংড়াবুনিয়া, রূপদোন, কুপদোন, হরিদ্রা এবং কালমেঘা ইউনিয়নে আশানুরুপ আলুর চাষ হয়েছে।

পাথরঘাটা উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানা যায়, এ উপজেলায় আলু চাষে ৪’শ হেক্টর জমিতে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হলে, এ লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে ৫’শ ৫৯ হেক্টর জমিতে আলুর আবাদ করা হয়েছে।

উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, কৃষকরা আলু ক্ষেতে কীটনাশক, সার প্রয়োগ এবং আগাছা পরিস্কারে ব্যস্ত সময় পার করছেন। কোন কৃষক ঘরে বসে নেই। প্রতিদিন সকাল হলেই ক্ষেতে বিভিন্ন পরিচর্যার কাজে ব্যস্ত থাকেন তারা। এ অঞ্চলে আলু চাষে লাভবান হওয়ায় আগ্রহ বাড়ছে আলু চাষীদের মাঝে। তাই চলতি মৌসুমে ব্যাপক হারে চাষিরা আলুর চাষ করেছেন।

জানা যায়, প্রতি বছরই আগাম আলু চাষ করে লাভবান হচ্ছেন এ অঞ্চলের কৃষকরা ।

উপজেলার কাকচিরা ইউনিয়নের জালিয়াঘাটার সঞ্জিব বেপারী জানান, কৃষি অফিসের পরামর্শে এ বছর তিনি ১ একর জমিতে আলুর চাষ করেছেন। এতে তার খরচ হয়েছে ১ লাখ ৫০ হাজার টাকা। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে এবং আলুর ফলন ও ভালো দাম পেলে লাভবান হবেন বলে তিনি আশাবাদী।

তিনি আরও জানান, আলু চাষে সরকারের সু-দৃষ্টি বা একটু সুযোগ তৈরী করে দিলে আলু চাষিদের কখনও লোকসানে পড়তে হবে না।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শওকত হোসেন জানান, এই এলাকার মাটি আলু চাষের উপযোগী। এবারে আলু চাষে ব্যাপক ফলন হবে বলে আশা করা যাচ্ছে। আমরা কৃষি বিভাগ থেকে কৃষকদের পরামর্শ এবং সর্বাত্বক সহযোগিতা করে যাচ্ছি। এছাড়াও মাঠ পর্যায়ে কৃষকদের প্রতিনিয়ত আলু চাষে উদ্বুদ্ধ করা হচ্ছে।

Print Friendly

Related Posts